ঢাকাসোমবার , ২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আবহাওয়া
  3. আমাদের পরিবার
  4. আর্ন্তজাতিক
  5. ইসলামী জীবন
  6. করোনা আপডেট
  7. কামারখন্দ
  8. খেলাধুলা
  9. চাকরি-বাকরি
  10. জাতীয়
  11. নাগরিক সংবাদ
  12. পাঁচমিশালি
  13. বরিশাল বিভাগ
  14. বাংলাদেশ
  15. বিনোদন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কুয়াকাটায় গতকাল মধ্যরাতে নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়েছে।। প্রস্তত হচ্ছে জেলেরা।।

কলাপাড়া উপজেলা প্রতিনিধি
জুলাই ২৪, ২০২১ ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

কলাপাড়া পটুয়াখালী
প্রজনন মৌসুমে ইলিশ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা শেষ হচ্ছে গতকাল শুক্রবার মধ্যরাত থেকে নতুন উদ্যমে উপকুলের জেলেরা বঙ্গোপসাগরে ইলিশ শিকারে নামছেন। দীর্ঘ ৬৫ দিন পর তাদের নদীতে ফেরা। প্রজনন মৌসুমে ইলিশের বংশবিস্তার নির্বিঘ্ন করতে গত ২০ মে এ নিষেধাজ্ঞা শুরু হয়। দেশের সামদ্রিক জলসীমায় মাছের বংশবিস্তার বাড়াতে ২০ মে থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত ইলিশ মাছ ধরা নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মৎস্য সম্পদ মন্ত্রণালয়। সেখানে বলা হয়েছে, সামদ্রিক জলসীমায় মাছের বংশ বৃদ্ধির পাশাপাশি উৎপাদন, সামদ্রিক মৎস্য সম্পদ সংরক্ষন এবং টেকসই মৎস্য আহরণের জন্য ২০ মে থেকে ২৩জুলাই ২০২১ পর্যন্ত মোট ৬৫ দিন পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। মেরিন ফিশারিজ অর্ডিন্যান্স অনুযায়ী, বঙ্গোপসাগরে প্রতিবছর ৬৫দিন মাছ ধরা নিষিদ্ধ। ২০১৫ সালে এই নিষেধাজ্ঞা চালু করা হয়। প্রজনন মৌসুম শেষে ইলিশ রক্ষায় সরকারি নিষেধাজ্ঞা শেষে সাগরে ফিরতে শুক্রবার ব্যস্ত সময় কাটাতে দেখা গেছে উপকুলের জেলেদের। নিষ্প্রান জনপথ হয়ে উঠছে প্রানচাঞ্চল্য। এরই মধ্যে জেলেরা জাল, ট্রলার মেরামতসহ সব রকমের কাজ শেষ করেছেন। ট্রলারগুলোতে বাজার-সওদা করে ফেলেছেন। এখন ট্রলারের কন্দলে বরফ নেয়ার পালা। জেলেরা পুরোদমে নদী ও সাগরের উদ্দেশে ট্রলার ভাসাবেন। মাছ ধরায় ঝাঁপিয়ে পড়বেন তারা। এখন শুধু অপেক্ষা। এ নিয়ে পরিবারগুলোতেও দেখা গেছে প্রানচাঞ্চল্য। গত মৌসুমে ঋনগ্রস্ত জেলেরা আশায় বুক বেঁধে আবারো প্রস্তুতি নিচ্ছেন। বরিশাল বিভাগীয় সর্ববৃহৎ মৎস্য বন্দর মহীপুর ও আলীপুর মৎস্য বন্দরে গিয়ে দেখা গেছে শ্রমিক দিয়ে আড়ৎ গুলো পানি দিয়ে পরিস্কার কাজে ব্যস্ত। উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নে গঙ্গামতি গ্রামটি জেলে-অধ্যুষিত। গত বৃহস্পতিবার ওই গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, জেলেরা বাড়ির উঠান ও রাস্তার পাশে খোলা স্থানে জাল মেরামত করছেন, কেউ জাল গোছগাছ করছেন। গ্রামের আলী হোসেন খাঁ নামের এক জেলে বলেন, ৬৫ দিন খুব কষ্টে কাটছে। মোরা তো মাছ ধরন ছাড়া কোনো কামকাইজ পারি না। গাঙ্গে মাছ ধইরাই সংসার চলে। নিষেধাজ্ঞা শ্যাষ অইলেই য্যাতে গাঙ্গে নামতে পারি, হেইতে সব কিছু হুছাইয়্যা রাখতে আছি। কুয়াকাটা জেলে পল্লিতে কথা হয় বেশ কয়জন জেলের সঙ্গে। তাঁরা জানান, এর মধ্যেই সাগরে যাওয়ার সব প্রস্ততি সম্পন্ন করেছেন তারা। কলাপাড়া মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা জানান, গত ২০ মে থেকে ২৩জুলাই ২০২১ পর্যন্ত মোট ৬৫ দিন পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা ইলিশ শিকারের ব্যাপারে আমরা মৎস্য বিভাগ সঠিক ভাবে পরিচালনা করতে পেরেছি। সাগরে অবৈধ মাছ শিকারের কারনে ৬৫ দিনে ৬ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।