ঢাকাশনিবার , ২৭শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আবহাওয়া
  3. আমাদের পরিবার
  4. আর্ন্তজাতিক
  5. ইসলামী জীবন
  6. করোনা আপডেট
  7. কামারখন্দ
  8. খেলাধুলা
  9. চাকরি-বাকরি
  10. জাতীয়
  11. নাগরিক সংবাদ
  12. পাঁচমিশালি
  13. বরিশাল বিভাগ
  14. বাংলাদেশ
  15. বিনোদন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কলাপাড়ায় মাছের ঘের থেকে ভাসমান অবস্থায় স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার

Link Copied!

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় নিখোঁজের একদিন পর তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীর লাশ ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করেছে এলাকাবাসী।

রবিবার (১লা জুলাই) রাত নয়টার দিকে উপজেলার ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের মনসাতলী গ্রামের একটি মাছের ঘের থেকে লাশটি উদ্ধারকরাহয় । উদ্ধার হওয়া ছাত্রীর নাম সানজিদা (৮)। নিহত সানজিদা একই উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নের চর ধুলাসার গ্রামের শীষ আলমের মেয়ে। মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো.মনিরুজ্জামান জানান,গত প্রায় এক মাস পূর্বে মা রাহিমা বেগমের সাথে মনষাতলী গ্রামে নানা শাহ আলমের বাড়িতে বেড়াতে আসে সানজিদা। গত ৩১ জুলাই(শনিবার) বিকাল তিনটার দিকে পাশ্ববর্তী খালা বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বের হয় সানজিদা। এর পর থেকে তাকে আর খুজে পাওয়া যায়নি।

রোববার(১ জুলাই) দুপুরে সানজিদার মা মেয়ের খবর জানতে তার বোন জান্নাতি বেগমকে ফোন করলে জানতে পারে সানজিদা তাদের বাসায় যায়নি। তাৎক্ষনাৎ দুই পরিবারের লোকজনসহ এলাকাবাসী গ্রামের বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি শেষে মালেক খলিফার মাছের ঘেরের পানিতে সানজিদার মৃতদেহ ভাসমান অবস্থায় দেখতে পায় এলাকাবাসী। পরবর্তীতে লাশটি এলাবাসী নিজেরাই পানি থেকে উদ্ধার করে। উদ্ধারের সময় মৃতদেহটি ফুলে ফ্যাকাশে অবস্থায় পাওয়া যায়। পরিবারের লোকজন তাৎক্ষণিক মহিপুর থানায় জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশটি উদ্ধার করে থনায় নিয়ে যায়।

থানায় লাশের সুরতহাল শেষে সোমবার সকালে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারন জানা যাবে।এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে ।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।