ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আবহাওয়া
  3. আমাদের পরিবার
  4. আর্ন্তজাতিক
  5. ইসলামী জীবন
  6. এনায়েতপুর
  7. কক্সবাজার
  8. করোনা আপডেট
  9. খেলাধুলা
  10. চাকরি-বাকরি
  11. জাতীয়
  12. নাগরিক সংবাদ
  13. পাঁচমিশালি
  14. বরিশাল বিভাগ
  15. বাংলাদেশ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

রাশিদাজ্জোহা সরকারি মহিলা কলেজে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বিনা রশিদে অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার অভিযোগ

যুগের কথা প্রতিবেদক
ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৩ ৩:২৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

রাশিদাজ্জোহা সরকারি মহিলা কলেজে শিক্ষার্থীদের
নিকট থেকে বিনা রশিদে টাকা নেওয়ার অভিযোগ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি :
নীতিমালা লঙ্ঘন করে সিরাজগঞ্জে রাশিদাজ্জোহা সরকারি মহিলা কলেজে একাদশ শ্রেনীতে আনুষাঙ্গিক শিক্ষা উপকরণ (ব্যাচ, সোল্ডার, ফোল্ডার ও দ্বিবার্ষিক শিক্ষা পরিকল্পনা) বই দেওয়া নামে বিনা রশিদে শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে (৭’শ) টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এ নিয়ে অভিভাবকেরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। বৃহস্পতিবার (২৩ ফেব্রুয়ারী) সকালে সরেজমিনে কলেজ গিয়ে বিভিন্ন ছাত্রীদের সাথে কথা বলে ওই তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। পরে সাংবাদিকের উপস্থিতি দেখে টাকা নেওয়া বন্ধ করে দেয় কলেজ কর্তৃপক্ষ।

কলেজ সুত্রে জানা যায়, এবার ২০২২-২০২৩ বর্ষে একাদশ শ্রেণীতে তিনটি বিভাগে মোট ৯৯৪জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছেন। কলেজের নোটিশ বোর্ডে ২০২২-২০২৩ শিক্ষাবর্ষের একাদশ শ্রেণীতে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের অবগত করার জন্য একটি নোটিশ টানানো হয়েছে। নোটিশে উচ্চমাধ্যমিক উপবৃত্তির ফরম আগামী ০৮-০২-২০২৩খ্রিঃ এবং আনুষাঙ্গিক শিক্ষা উপকরণ (ব্যাচ, সোল্ডার, ফোল্ডার ও দ্বিবার্ষিক শিক্ষা পরিকল্পনা) উপকরণ সংগ্রহ করতে নির্দেশ দিয়েছে। সেই মোতাবেক একাদশ শ্রেণীর প্রতিটি শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে বিনা রশিদে (৭’শ) টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। নোটিশ বোর্ডে কোন খাতে কত টাকা নেওয়া হচ্ছে তা টাঙানো নেই।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাদশ শ্রেণীর একাধিক শিক্ষার্থী অভিযোগ করে বলেন, আমাদের নিকট থেকে ৭শ’ টাকা নিচ্ছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। শিক্ষার্থীরা আরো বলেন, কি কারণে বিনা রশিদে এই টাকা নেওয়া হচ্ছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে কলেজ কর্তৃপক্ষ আমাদের বলেন পরে ক্লাশে জানিয়ে দেওয়া হবে।

একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীর এক অভিভাবক বলেন, কে এতো টাকা নেওয়া হচ্ছে আমার জানা নেই। তিনি আরো বলেন, এখানে মেয়েকে পড়াচ্ছি সেই কারণে তারা যা বলবে, তাই শুনতে হবে। আরেক অভিভাবক ইয়াছমিন খাতুনসহ একাধিক অভিভাবক বলেন, ৭’শ টাকা নিচ্ছে। কিন্তু কোন রশিদ বা কোন কাগজ দেয়নি।

এ বিষয়ে রাশিদাজ্জোহা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মো. খাদেমুল ইসলাম ৭’শ টাকা নেওয়া বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, আমাদের কলেজে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপকরণ ব্যাচ, সোল্ডার, ফোল্ডার ও দ্বিবার্ষিক শিক্ষা পরিকল্পনা একটি বই দেওয়ার জন্য এই টাকা নেওয়া হচ্ছে। বিনা রশিদের টাকা নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন পরবর্তীতে রশিদ দিয়ে টাকা নেওয়া হবে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।