ঢাকারবিবার , ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আবহাওয়া
  3. আমাদের পরিবার
  4. আর্ন্তজাতিক
  5. ইসলামী জীবন
  6. এনায়েতপুর
  7. কক্সবাজার
  8. করোনা আপডেট
  9. খেলাধুলা
  10. চাকরি-বাকরি
  11. জাতীয়
  12. নাগরিক সংবাদ
  13. পাঁচমিশালি
  14. বরিশাল বিভাগ
  15. বাংলাদেশ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কামারখন্দে টাকার অভাবে দশ বছরেও চিকিৎসা হয়নি কাজুলির

রাইসুল ইসলাম রিপন
অক্টোবর ১৯, ২০২৩ ৮:৫৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

কামারখন্দে টাকার অভাবে দশ বছরেও চিকিৎসা হয়নি কাজুলির
মানসিক প্রতিবন্ধি কাজুলি খাতুন। দুরন্ত কৈশোরেই শিকলে বাধা পরেছে দরিদ্র পরিবারের কাজুলির দু পা। হারিয়ে যাওয়া বা মারপিটের শিকার হওয়ার দুশ্চিন্তায় কাজুলির দু’পায়ে শিকল পরিয়ে আর্থিক অনটনে চিকিৎসা করাতে না পারার যন্ত্রনায় পুরছেন বিধবা বৃদ্ধা মা।
সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার ক্ষিদ্রা ভদ্রঘাট গ্রামের আট কন্যা সন্তানের জনক-জননী শুকুর আলী ও খায়রুন বেগমের সর্বকনিষ্ঠ সন্তান কাজুলি খাতুন। পঞ্চম শ্রেণী পাশ করে দাখিলি মাদ্রাসায় পড়াশোনা করা অবস্থায় হঠাৎ মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে কাজুলি।
দিনমজুর পিতা স্থানীয় কবিরাজ ও পল্লী চিকিৎসকদের সহায়তায় মেয়েকে সুস্থ করার প্রচেষ্টা চালানো অবস্থায়ই মারা যান ২০১২ সালে, ঐ সময়েই টাকা পয়সা না থাকায় চিকিৎসা বন্ধ হয়ে যায় মেয়েটির। বৃদ্ধ মা, স্বজন ও প্রতিবেশীদের মারপিট করা, নিজের ইচ্ছায় যে কোন দিকে চলে যাওয়া, ঘড়ের আসবাবপত্র ভাংচুর করা, খাবার ফেলে দেওয়াসহ নানা রকম সমস্যার সৃষ্টি করায় ২০১৩ সালেই শিকল পড়ানো হয় কাজুলির দু’পায়ে।
অসহায় প্রতিবন্ধি কিশোরীর দুরন্ত কৈশোর হয়ে পরে শিকলবন্দি। সাত মেয়ের বিয়ের দায় মেটাতে সর্বশান্ত বৃদ্ধা খায়রুন বেগম সন্তানকে সুস্থ করতে চিকিৎসা করাতে চাইলেও ১০ বছরেও তা আর হয়ে ওঠেনি টাকার অভাবে।
শুকুর আলীর মৃত্যুর পর থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন কাজুলি ও তার মা খায়রুন বেগমের সংসারের ব্যয়ভার বহন করছেন বোন ও স্বজনেরা। সহযোগিতার হাত বাড়ান প্রতিবেশিরাও। কিন্তু সামর্থ্য না থাকায় কাজুলির চিকিৎসা করানো সম্ভব হচ্ছে না।
প্রতিবেশীরা জানান, মানসিক ভারসাম্যহীন এই কিশোরীর অসংলগ্ন আচরণ, যে কাউকে মারপিট করা, ভাংচুর করার প্রবনতা বাড়ছে দিনকে দিন। ফলে বিপত্তিতে পরছেন তার অসহায় বৃদ্ধা মা। এ অবস্থায় এতিম অসুস্থ মেয়েটির চিকিৎসায় সরকার ও বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান পরিবার, স্বজন ও প্রতিবেশিদের।
কামারখন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহীন সুলতানা বলেন, লোকচক্ষুর অন্তরালে থাকা কাজুলি খাতুনের মানসিক ভারসাম্যহীনতার খবর শুনে দ্রুত সরেজমিন পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় সরকারি সহায়তার ব্যবস্থা করা হবে।
সিরাজগঞ্জ-২ (সদর-কামারখন্দ) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা: মো: হাবিবে মিল্লাত মুন্না বলেন, কাজুলির রোগ নির্ণয়  ও চিকিৎসায় অতিদ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণসহ প্রয়োজনীয় সহায়তা করা হবে।
অসহায় মানসিক প্রতিবন্ধি এই কিশোরীকে সুস্থ, স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে এগিয়ে আসবে সরকার ও বিত্তবানেরা এমনটিই প্রত্যাশা পরিবার ও স্থানীয়দের।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।